অর্থ পাচার রোধে বন্দরে স্ক্যানার স্থাপন

0
53

টাকা পাচার রোধ করার জন্য দেশের সব কয়েকটি বন্দরে স্ক্যানার মেশিন স্থাপন করার নির্দেশ দিয়েছে সরকার গঠিত মানি লন্ডারিং এবং সন্ত্রাসে অর্থায়ন প্রতিরোধ সংক্রান্ত “ওয়ার্কিং কমিটি” । এবং জানান স্ক্যানার এর মাধ্যমে সব ধরনের পণ্য পরীক্ষা নিরীক্ষা করতে হবে ।

স্ক্যানার স্থাপনের বিষয়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে “এনবিআর” কে নিশ্চিত করতে বলা হয়। ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে উল্লিখিত বিষয়টি ছারাও বেশ কয়েকটি সিদ্ধান্ত নেয়া হয় । বৈঠকের কার্য বিবরণী সূত্রতে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ফজলুল হক জানান , বিদেশে টাকা পাচার রোধে মানি লন্ডারিং আইন সংশোধন করা হয় । আর এই আইনের আলোকে সকল বিধিমালা প্রণয়নের কাজ করা হচ্ছে । তবে  এই বিধিমালা চূড়ান্ত হওয়ার আগেই ভেটিংয়ের জন্য তা আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয় । এর পর সেখান থেকে সকল বিষয়ে মতামত চাওয়া হলে তা কার্যকারী করা হবে ।

বিধিমালা তৈরির পর অর্থ পাচার রোধ করা সম্ভব হবে বলে তিনি অভিমত প্রকাশ করেন।

অর্থনীতিবিদ ও বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গভর্নর খোন্দকার ইব্রাহিম খালেদ জানান, অনেকে এলসি খুলেও বিদেশ থেকে মালপত্র আনেন না। তারা পণ্য আমদানিতে মিথ্যা ঘোষণা দিয়ে মালামাল দেশে না এনে বিদেশেই পুরো টাকা রেখে আসে । আর এভাবেই দেশের টাকা পাচার হচ্ছে। ব্যাংক এবং কাস্টমস বিভাগের পূর্ণ সহযোগিতা না থাকলে অর্থ পাচার রোধ করা কখনও সম্ভব নয় । তবে বন্দরে স্ক্যানার মেশিন স্থাপন উদ্যোগ অনেক ভালো।

ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে মহাসচিব মো. রিজওয়ানুল হুদা জানান , আন্তর্জাতিক মানদণ্ড সংস্থা ‘এপিজি’র বৈঠকে অর্থ পাচার এবং  সন্ত্রাসে অর্থায়ন রোধে বাংলাদেশের অবস্থান মূল্যায়ন করা হবে । বিশেষ করে সংশ্লিষ্ট আইন ও প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামোর সংস্কার কার্যক্রমের মূল্যায়ন করা হবে। যার ফলে এসব ক্ষেত্রে আমাদের রেটিং উন্নয়নের সুযোগও রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here