জামায়াত ছাড়ার পরামর্শ বিএনপির

0
63

২০ দলীয় জোটের অন্যতম শরিক জামায়াতের সঙ্গ ত্যাগ করার জন্য বিএনপির হাইকমান্ডকে পরামর্শ দিয়েছেন তৃণমূলের নেতারা।

জোটে যুদ্ধাপরাধীর দায়ে অভিযুক্ত জামায়াতে ইসলামী থাকার কারনে বিএনপি সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে বলে মনে করেন তারা । জামায়াত তো শুধু বিএনপির সাথে ভোটে ভাগ বসায়। এজন্য জামায়াতকে নিয়ে এখন ভেবে দেখার সময় এসেছে বলে মন্তব্য করেন তারা।

বিএনপির হাইকমান্ডের সাথে দলটির ৬২ সাংগঠনিক জেলার নেতাদের ধারাবাহিক মতবিনিময় সভায় জামায়াত নিয়ে এসব অভিমত তুলে ধরেন।

গত এক মাস ধরে অনুষ্ঠিত মতবিনিময়ে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে রাজপথে কঠোর আন্দোলন কর্মসূচির ওপরও জোর দেন বিএনপির নেতারা কর্মীরা । পাশাপাশি দলকে সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে তৃণমূল নেতাদের একগুচ্ছ নির্দেশনা দেন । এগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল – নিষ্ক্রিয়দের তালিকা তৈরি, নিয়মিত সভার মাধ্যমে নেতাকর্মীদের উজ্জীবিত রাখা, ক্ষতিগ্রস্তদের সহায়তা ও মেয়াদোত্তীর্ণ ইউনিয়ন থেকে থানা পর্যন্ত প্রতিটি স্তরের কমিটি গঠন করা । এসব নির্দেশনা পেয়ে মাঠে কাজ শুরু করেছেন এসব তৃণমূল নেতারা।

বিএনপির কেন্দ্র ও তৃণমূলের নেতারা আরও জানান, একাদশ সংসদ নির্বাচনে ফল বিপর্যয়ের পর ঝিমিয়ে পড়া তৃণমূল নেতাকর্মীদের চাঙ্গা করতেই মূলত তৃণমূলের সাথে দলটির নীতিনির্ধারকদের এই ধারাবাহিক মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়।

রাজধানীর নয়াপল্টনে দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে গতকাল মঙ্গলবার পর্যন্ত ৮২ সাংগঠনিক জেলা শাখার মধ্যে ৬২ জেলার সভা শেষ করা হয়েছে। আগামী ১৫ এপ্রিলের মধ্যে মহানগর ছাড়া বাকি সবগুলো সাংগঠনিক জেলার সাথে বৈঠক করা শেষ হবে। পরে ঢাকাসহ সব মহানগর কমিটির নেতাদের নিয়ে পর্যায়ক্রমে বৈঠক করবে বলে জানান ।

এ বিষয়ে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী জানান , এ পর্যন্ত ৬২ সাংগঠনিক জেলা শাখার নেতাদের সাথে  মত বিনিময় করা হয়েছে। এবং তাদের কিছু নির্দেশনাও দেয়া হয়েছে।

বিএনপির সহসাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ জানান , এটি একটি ভালো সাংগঠনিক উদ্যোগ। দলকে নতুন করে সাজানোর জন্য তৃণমূল পর্যায়ের নেতাদের মতামত নেয়া হচ্ছে। একটা ‘কারচুপির’ নির্বাচনের পর নেতাকর্মীদের মধ্যে যে একটা ঝিমিয়ে পড়া ভাব ছিল- এই মত বিনিময়ের ফলে সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের মধ্যে আবার একটা উদ্দীপনা শুরু হবে । যা দলের সবাই ভালো দৃষ্টিতে দেখবেন । এটা দলের জন্য খুবই ইতিবাচক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here