ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ভারতের পাতানো ম্যাচ ছিল কি ?

0
26

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ভারত কি খেলেছিল সত্যিই জয়ের জন্য। সোশ্যাল মিডিয়ায় এমন প্রশ্নই করছেন ক্রিকেট সমর্থকদের অনেকে।

এবার বিশ্বকাপে টানা জয়ে ফর্মের তুঙ্গেই ছিল ভারত। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৩৩৮ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে বিরাট কোহলিদের ৩১ রানের পরাজয়ে হতাশ সমর্থকরা। ক্রিকেট সমর্থকদের অনেকেই বলছে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে জয়ের মানসিকতা নিয়ে খেলেনি ভারত!

ভারতের ইনিংসের শেষদিকে ধোনি-যাদবের ছন্নছাড়া ব্যাটিং নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক সমালোচনা হচ্ছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকেই বলছেন চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানকে কৌশলে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় করে দিতেই এমন বাজে ব্যাটিং করেন ধোনিরা।

অনেকে ফেসবুকে লেখেন, এই রকম রকিং ব্যাটিং লাইন আপ নিয়ে ভারত প্রথম ছক্কা হাঁকিয়েছে শেষ ওভারে এসে। ৩৩৮ রানের টার্গেট তাড়া করতে নামা কোনো দল যখন শেষ ওভারে গিয়ে এটা করে….সেই দল জয়ের জন্য নেমেছিলো-তা বিশ্বাস করা যায়?

ভারতের ব্যাটিং দেখে মনে হয়েছে তাদের জেতার কোনো ইচ্ছাই ছিলো না। আরও একটা পাতানো ম্যাচ ছিল বলে স্ট্যাটাস দেন ফেসবুকে  ।

সামাজিক মাধ্যমে আলোচনা হচ্ছে, আজ ১০ ওভার বল করে কোনো উইকেট পাননি চাহাল। শুধু উইকেটশূন্য থাকেননি, উদারহস্তে রানও দিয়েছেন ৮৮টি। বিশ্বকাপে তাঁর চেয়ে বেশি রান এক ম্যাচে ভারতের কেউ দেননি।

২০০৩ বিশ্বকাপ ফাইনালে রিকি পন্টিংয়ের কাছে বেধড়ক পিটুনির শিকার হয়ে জাভাগাল শ্রীনাথ ৮৭ রান দিয়েছিলেন। গত তিন বিশ্বকাপে কারও সে রেকর্ড আর ভাঙা হয়নি । বিশ্বকাপে ভারতের সবচেয়ে খরচে বোলিংয়ের রেকর্ডটা আজ থেকে চাহালের।

বিশ্বকাপে চাহালের চেয়ে বেশি রান দিয়েছে এমন স্পিনারই আছেন মাত্র দুজন। একজন রশিদ খান। আর এ দুই লেগ স্পিনারে মাঝে আছেন ডোয়াইন লেভেরক। ২০০৭ বিশ্বকাপে বারমুডার হয়ে ভারতের বিপক্ষে ৯৬ রান দিয়েছিলেন এই বাঁহাতি স্পিনার।

সামাজিক মাধ্যমে ইংল্যান্ড-ভারত ম্যাচ নিয়ে মূল কথা বলা হয়েছে, ভারত ব্যাটিং-বলিং সকল ক্ষেত্রেই নিজেদের যে উদারতা দেখিয়েছেন তা মূলত বাংলাদেশ, পাকিস্তান এবং শ্রীলংকাকে পেছনে ফেলে দিতেই পাতানো ম্যাচ খেলেছে তারা ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here